জয়পতাকা স্বামী মহারাজের জীবনী

650.00৳ 

সরাসরি কিনতে ফোন করুন: 01622913639

>> সারাদেশে ক্যাশ অন ডেলিভারি করা হয় !

>> ডেলিভারি খরচ ঢাকার মধ্যে ৬০ ঢাকার বাইরে  ১০০ টাকা !

>> প্রোডাক্ট হাতে পেয়ে চেক করে মূল্য পরিশোধ করতে পারবেন !

>> ডেলিভারি খরচ সাশ্রয় করতে একসাথে কয়েকটি প্রোডাক্ট অর্ডার করুন !

305 in stock

SKU: ( ,7, ) মেছতার দাগ দূর করার উপায় Categories: , Tag:

Description

জয়পতাকা স্বামী মহারাজের জীবনী, প্রিয় পাঠক আজকের  আর্টিকেলটিতে আমরা আলোচনা করব জয়পতাকা স্বামী মহারাজের জীবনী তাই আমাদের আর্টিকেলটি পড়ে আপনি জানতে পারবেন জয়পতাকা স্বামী মহারাজের জীবনী সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য তাহলে চলুন দেরি না করে এখনি জেনে নেয়া যাক ।

আর্টিকেলটিতে আমরা কিছু  প্রডাক্ট তুলে ধরেছি প্রোডাক্টের বিজ্ঞাপন পিকচার তুলে ধরেছে আপনি চাইলে প্রোডাক্টগুলো দেশের যেকোনো প্রান্ত থেকে অর্ডার করে সংগ্রহ করতে পারেন । প্রডাক্ট কেনার জন্য সরাসরি ফোন নম্বরে যোগাযোগ করুন অথবা অডার অপশনে অর্ডার করুন ।

স্বামী মারা গেলে

জয়পতাকা স্বামী ১৯৪৯ সনের ৯ই এপ্রিল (রাম নবমী পরবর্তী একাদশী তিথিতে) আমেরিকার উইস্কনসিনের মিলওয়াকিতে জন হুবার্ট ও লরেইন এ্যার্ডম্যানের পুত্ররূপে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি অত্যন্ত সম্পদশালী পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতামহ বিশাল একটি রংয়ের কারখানার প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন, যেটির মূল্যমান তাঁর জন্মের সময়ই লক্ষ লক্ষ ডলারের অধিক ছিল। যখন জয়পতাকা মহারাজের বয়স এগার বছর, তখন তিনি তাঁর পিতামহের পরামর্শে ঈশ্বরের নাম জপ করার মাধ্যমে চর্মরোগ হতে আরোগ্যতা লাভ করেন। ১৪ বছর বয়সে সেন্ট জনস্ একাডেমী হতে তিনি প্রায় একরকম প্রচেষ্টা ছাড়াই কলেজে ভর্তির জন্য প্রস্তুতি পরীক্ষায় শীর্ষ স্থানসহ অর্জন করেন। যখন তিনি ভারতে যাবার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন, তখন একদিন আন্তর্জাতিক কৃষ্ণভাবনামৃত সংঘের প্রতিষ্ঠাতা আচার্য, কৃষ্ণকৃপাশ্রীমূর্তি এ. সি. ভক্তিবেদান্ত স্বামী প্রভুপাদের শিষ্যদেরকে পার্কে কীর্তন ও ব্যাক টু গডহেড পত্রিকা বিতরণ করতে দেখলেন। জয়পতাকা মহারাজ (তখন জয়পতাকা দাস) সেসময়ে ইসকন ও শ্রীল প্রভুপাদের প্রতি বেশ কিছু সেবা শুরু করেছিলেন। শীঘ্রই ভক্তরা মায়াপুরে নতুন স্থান খুজেঁ পেল এবং ১৯৭০ সালের ২৯ই অগাস্ট শ্রীল প্রভুপাদ ভারতে পৌঁছালেন। যখন তিনি পৌঁছালেন তখন সকলেই জানত যে আমেরিকায় ইতোমধ্যেই প্রভুপাদ ৯জনকে সন্ন্যাস দীক্ষা প্রদান করেছেন। ১৯৭০ সালে কোলকাতায় রাধাষ্টমীর পুণ্য তিথিতে শ্রীল প্রভুপাদ ব্যক্তিগতভাবে অগ্নিযজ্ঞানুষ্ঠান করেন এবং জয়পতাকা দাস তাঁর সন্ন্যাস দীক্ষা লাভ করেন। অতঃপর শ্রীল প্রভুপাদের এই ১২তম সন্ন্যাসী শিষ্য ত্রিদন্ডী ভিক্ষু জয়পতাকা স্বামী নামে পরিচিতি লাভ করেন।

আমাদের আর্টিকেলটিতে আমরা বিভিন্ন প্রোডাক্ট এর বিজ্ঞাপন পিকচার তুলে ধরেছিআপনি যদি মেডিসিন টি সংগ্রহ করতে চান তাহলে আর্টিকেল আদালতে সকল নাম্বার গুলো রয়েছে সেগুলো তো ফোন করে মেডিসিন সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে জেনে অর্ডার করে দিতে পারেন আপনার প্রয়োজনীয় মেডিসিন আমাদের প্রতিনিধি খুব দ্রুত সময়ের মধ্যে পৌঁছে যাবে আপনার ঠিকানায় ধন্যবাদ।

আমাদের এই আর্টিকেলটিতে আমরা তুলে ধরেছি কিছু তথ্য যা সংগৃহীত এবং আমাদের নিজস্ব ভাষায় উপস্থাপিত জয়পতাকা স্বামী মহারাজের জীবনী এই আর্টিকেল সম্পর্কে আপনার প্রশ্ন কিংবা জিজ্ঞাসা থাকলে আমাদেরকে অবশ্যই কমেন্ট বক্সে জিজ্ঞাসা করতে পারেন।
আমাদের আর্টিকেলটিতে মেছতার দাগ দূর করার উপায় একটি পণ্য রয়েছে যেটি আপনারা চাইলে ক্রয় করতে পারেন আমাদের এই পণ্যটির ব্যবহার করার ফলে আপনি আপনার মেছতার দাগ দূর করতে পারবেন । তাই আপনি যদি আপনার মেছতার দাগ দূর করতে চান তাহলে অবশ্যই আমাদের এই পণ্যটি ব্যবহার করতে হবে আর আমাদের পণ্যটি ক্রয় করার জন্য আমাদের সাথে যোগাযোগ করতে হবে ।

Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “জয়পতাকা স্বামী মহারাজের জীবনী”

Your email address will not be published. Required fields are marked *