বাচ্চা নেওয়ার জন্য সহবাসের পদ্ধতি

850.00৳ 

সরাসরি কিনতে ফোন করুন: 01622913639

>> সারাদেশে ক্যাশ অন ডেলিভারি করা হয় !

>> ডেলিভারি খরচ ঢাকার মধ্যে ৬০ ঢাকার বাইরে  ১০০ টাকা !

>> প্রোডাক্ট হাতে পেয়ে চেক করে মূল্য পরিশোধ করতে পারবেন !

>> ডেলিভারি খরচ সাশ্রয় করতে একসাথে কয়েকটি প্রোডাক্ট অর্ডার করুন !

310 in stock

Description

বাচ্চা নেওয়ার জন্য সহবাসের পদ্ধতি সম্পর্কে অনেকেই আমাদের কাছে বিস্তারিত জানার আগ্রহ প্রকাশ করে থাকেন তাই আজকের মেডিকেল টি সাজিয়েছি এমন ভাবে যে আর্টিকেলটির মাধ্যমে আপনি জানতে পারবেন বাচ্চা নেওয়ার জন্য সহবাসের পদ্ধতি এবং বাচ্চা নিতে চাইলে আপনি কোন পদে সহবাস করতে হবে এ সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করব তাই আর দেরি না করে চলুন আমরা মূল আলোচনা চলে যাই আমাদের আর্টিকেলটি আপনি মনোযোগ সহকারে পড়বেন এবং মন্তব্য থাকে তবে অবশ্যই আমাদেরকে কমেন্ট করে জানিয়ে দিবেন।কোন ট্যাবলেট খেলে এক ঘন্টা সহবাস করা যায়

বাচ্চা নেওয়ার জন্য সহবাসের পদ্ধতি

নিয়মিত সেক্স করুন । গর্ভাবস্থার হার সবচেয়ে বেশি দম্পতিদের মধ্যে ঘটে যারা প্রতিদিন বা প্রতি দিন সহবাস করে। ডিম্বস্ফোটনের সময় কাছাকাছি সেক্স করুন। যদি প্রতিদিন সেক্স করা সম্ভব না হয় — বা আনন্দদায়ক — আপনার মাসিক শেষ হওয়ার শীঘ্রই সপ্তাহে 2 থেকে 3 দিন সেক্স করুন।

তাই এই পদ্ধতিতে সাধারণত আপনি আপনার নিজের যে চাহিদাগুলো আছে সেগুলো আপনি পূরণ করার জন্য আপনি তখন আপনি সহবাস করবেন অথবা এর জন্য আপনি প্রস্তুতি নিবেন এর জন্য আপনাকে কোন আলাদা অপশন বেছে নিতে হবে না সে ক্ষেত্রে আপনি শুধু প্রটেকশন ছাড়া আপনি সহবাস করলেই আপনার এই বাচ্চা নেওয়ার জন্য পারফেক্ট হবে এবং তার একটি সময় থাকবে এই সময় অনুযায়ী তার সাথে আপনি প্রোটেকশন ছাড়া এই পদ্ধতিটি আপনি অবলম্বন করতে পারেন সে ক্ষেত্রে আপনি আশা করি আপনার যে চাহিদা অনুযায়ী কাজটি হয়ে যাবে।

মা হওয়া একটি আনন্দের অনুভূতি। যদি একজন মহিলা গর্ভবতী হওয়ার কথা ভাবেন, তবে তাকে প্রথমে নিজের মাসিক চক্রের দিকে নজর দিতে হবে। কারণ ওভুলেশন হল গর্ভধারণ সংক্রান্ত সমস্ত সমস্যার উত্তর। একজন মহিলার ডিম্বাশয় থেকে ডিম্বাণু নিঃসরণকে ওভুলেশন বলে। ওভুলেশনের প্রক্রিয়া প্রতি মাসের একটা নির্দিষ্ট সময়ে হয়ে থাকে। ডাক্তার বিশাল মাকওয়ানা জানিয়েছেন যে, এই সময়ের মধ্যে মহিলার শরীর থেকে নির্গত ডিমগুলি পুরুষের বীর্যের সাথে মিলিত হওয়ার জন্য প্রস্তুত হয়। আর তাই এই সময়ে সহবাস করলে সহজেই গর্ভধারণ করা সম্ভব। নারী যদি মা হতে না চান, তাহলে এই সময়ে সহবাস না করে গর্ভধারণ এড়িয়ে যাওয়া যায়।

গর্ভবতী হওয়ার জন্য, আপনার মাসের কোন সময় ওভুলেশন হচ্ছে তা জানতে হবে। কারণ এই সময়টি বিভিন্ন মহিলাদের জন্য আলাদা। সাধারণত ২৮ দিনের মাসিক চক্রে ১৪-১৬ দিনের কাছাকাছি ঘটে এটি। কিন্তু সব নারীর মাসিক চক্র ২৮ দিনের হয় না। সাধারণত এই মাসিক চক্র ২৬-৩২ দিনের হয়ে থাকে। আর ওভুলেশন হয় একজন নারীর পিরিয়ডস শেষ হওয়ার ১০ থেকে ১৯ তম দিনে। পরবর্তী মাসিকের প্রায় ১২ থেকে ১৬ দিন আগে।

মহিলারা নিজেদের ওভুলেশনের লক্ষণগুলি বুঝতে পারবেন নানা লক্ষণ থেকে। এই সময়ে হওয়া হোয়াইট ডিসচার্জ বরাবরের থেকে আলাদা হয়। যোনি থেকে যে তরল নিষ্কৃত হয় তা ঘন হয়ে যায়। এই সময়ে, মহিলাদের শরীরের তাপমাত্রা বৃদ্ধি পায়। কিছু মহিলার ওভুলেশনের সময় তলপেটে হালকা ব্যথা হয় যা কয়েক মিনিট বা এমনকী কয়েক ঘন্টা পর্যন্ত স্থায়ী হতে পারে।

আমাদের আর্টিকেলটিতে আপনি উপরোক্ত যে তথ্যগুলো আমরা দিয়েছি সে তথ্যগুলো যদি আপনি অনুরূপ সহকারে পড়ে থাকেন অবশ্যই সে আর্টিকেল অনুযায়ী আপনি কাজ করার চেষ্টা করবেন অথবা মানুষ দিয়ে করার চেষ্টা করলে আপনার যে এই সমস্যাটির জন্য আপনি এই পেজটি অথবা এই কাজটি করার জন্য খুঁজেছেন সেটি আশা করি আপনার সমাধান হয়ে যাব। পুরুষের মেয়েদের সেক্স বৃদ্ধি করার হোমিও ঔষধ কিনতে ক্লিক করুনএখনি কিনুন 

এক মাসে কত দিনে গর্ভবতী হওয়া যায়

হ্যাঁ অবশ্যই সেটা হওয়া যায় এক মাসের মধ্যে আপনি চাইলে গর্ভবতী হতে পারবেন সে ক্ষেত্রে আপনাকে প্রথমে একজন গাইনি ডক্টর পরামর্শ অনুযায়ী চলতে হবে আপনি চাইলে একজন গাইনি ডাক্তার পরামর্শ অনুযায়ী চলবে এবং তার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আপনি তার নিয়মিত কনসার্টেশন থেকে আপনার দৈনিক দিন জীবনের অথবা প্রতিদিনের জীবন গঠন অনুযায়ী চলাফেরা করলে আশা করি আপনি সমাধান হবে।

এজন্য অবশ্যই আপনাকে একজন গাইডারেটরের পরামর্শ অথবা শরণাপন্ন হতে হবে যে আপনাকে সঠিক একটি পরামর্শ নিতে পারবে এবং সঠিক আপনার হাসবেন্ডকেও তাকে কনসাল্টেশন করিয়ে তার সঠিক পরামর্শ নিয়ে।

Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “বাচ্চা নেওয়ার জন্য সহবাসের পদ্ধতি”

Your email address will not be published. Required fields are marked *