হরমোন সমস্যার সমাধান

300.00৳ 

সরাসরি কিনতে ফোন করুন: 01622913640

>> সারাদেশে ক্যাশ অন ডেলিভারি করা হয় !

>> ডেলিভারি খরচ ঢাকার মধ্যে ৬০ ঢাকার বাইরে  ১০০ টাকা !

>> প্রোডাক্ট হাতে পেয়ে চেক করে মূল্য পরিশোধ করতে পারবেন !

>> ডেলিভারি খরচ সাশ্রয় করতে একসাথে কয়েকটি প্রোডাক্ট অর্ডার করুন !

999 in stock

SKU: (14) ৩০ মিনিটের মতো সেক্স করার হাব্বে নিষাদ ঔষধ Categories: , Tag:

Description

হরমোন সমস্যার সমাধান হরমোনের পরিবর্তন বা ভারসাম্যহীনতা শরীরে বিভিন্ন সমস্যা তৈরি করে। এটি ত্বক ও চুলে প্রভাব ফেলে। হরমোনের সমস্যা নারী-পুরুষ উভয়েরই হতে পারে। ত্বকের ব্রণ, অকালবার্ধক্য ইত্যাদি হরমোনের কারণে হয়। আবার কিছু কিছু হরমোন চুল পড়ার ক্ষেত্রেও দায়ী। আরো পড়ুন: ছেলেদের মেয়েদের কন -ডম গুপ্ত –  স্থান মেয়েদের পু -শি  কিনতে এখনই কিনুন

হরমোন সমস্যার সমাধান

হরমোন আমাদের সামগ্রিক স্বাস্থ্যকে প্রভাবিত করে। হরমোন আমাদের শরীরকে বলে কী করতে হবে এবং কী করতে হবে না। তাই জীবন ও স্বাস্থ্যের জন্য হরমোন অপরিহার্য। হরমোনের ভারসাম্যহীনতা শরীরের বিভিন্ন কার্যাবলীর ওপর বিরূপ প্রভাব ফেলতে পারে।

বিভিন্ন কারণে এর ভারসাম্যহীনতা তৈরি হতে পারে। অস্বাস্থ্যকর জীবনধারা, আলো-বাতাসে না যাওয়া, শারীরিকভাবে সক্রিয় না থাকা, অস্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়া ইত্যাদির ফলে হরমোনের ভারসাম্যহীনতা দেখা দেয়।

হরমোনের ভারসাম্যহীনতার সমস্যা থাকলে বেগুন, লঙ্কা, আলু ও টমেটোর মতো সবজি এড়িয়ে চলতে হবে। রেড মিট, স্যাচুরেটেড এবং হাইড্রোজেন ফ্যাট সমৃদ্ধ খাবার খাওয়া এড়িয়ে চলুন। – টিনজাত মাংস খাওয়া থেকে বিরত থাকুন। – যদি কোনও মহিলা গর্ভবতী হন এবং হরমোনের সমস্যায় ভোগেন তবে স্টেভিয়া এড়িয়ে চলুন।

কিছু সহজ উপায়ের মাধ্যমে হরমোনের ভারসাম্য ঠিক রাখা যায়

১. ঘি, বাদাম, বীজ হরমোন ঠিক রাখতে সাহায্য করে। তাই এগুলো নিয়মিত খেতে হবে। বাদামে থাকে লিনোলেইক এসিড ও স্বাস্থ্যকর ফ্যাট, যা হরমোন বৃদ্ধি করে।

২. প্রতিদিনের খাবারে পর্যাপ্ত পরিমাণ প্রোটিন থাকতে হবে। প্রোটিন স্বাস্থ্যকর হরমোনের দেখভাল করে। ডিম, ডাল, সয়া, পনির, দইয়ে প্রোটিন আছে।তাই এই খাবারগুলো প্রতিদিনের খাবারের তালিকায় রাখতে হবে।

৩. সকালে উঠেই চা-কফি পানের অভ্যাস ত্যাগ করতে হবে। অতিরিক্ত ক্যাফেইন শরীরের জন্য ভালো নয়। সকালে খালি পেটে চা-কফি পান করলে শরীরে অতিরিক্ত ইনসুলিন তৈরি হয়। যা হরমোনের ভারসাম্যহীনতা তৈরি করে।তবে হারবাল উপাদান হরমোনের ভারসাম্য ঠিক রাখতে সাহায্য করে।

৪. তিলবীজ, কুমড়ার বীজ, সূর্যমুখীর বীজ খনিজসমৃদ্ধ হয়, যা হরমোনের কার্যকারিতার জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এ ছাড়া উচ্চ আঁশযুক্ত ফলমূল খেতে হবে। যেমন- কলা, আপেল, স্ট্রবেরি। রঙিন শাকসবজিও হরমোনের ভারসাম্য রক্ষায় গুরুত্বপূর্ণ।

৫. রাতের খাবার দ্রুত খেতে হবে। কারণ রাতে শরীরে হরমোন উৎপাদনের আদর্শ সময়। রাতের খাবার দেরি করে খেলে শরীরে হরমোন উৎপাদন ব্যাহত হতে পারে।

Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “হরমোন সমস্যার সমাধান”

Your email address will not be published. Required fields are marked *