আখ চাষ পদ্ধতি

500.00৳ 

সরাসরি কিনতে ফোন করুন: 01622913639

>> সারাদেশে ক্যাশ অন ডেলিভারি করা হয় !

>> ডেলিভারি খরচ ঢাকার মধ্যে ৬০ ঢাকার বাইরে  ১০০ টাকা !

>> প্রোডাক্ট হাতে পেয়ে চেক করে মূল্য পরিশোধ করতে পারবেন !

>> ডেলিভারি খরচ সাশ্রয় করতে একসাথে কয়েকটি প্রোডাক্ট অর্ডার করুন !

305 in stock

SKU: ( ,,86,, ) স্থায়ীভাবে মোটা হওয়ার ঔষধ Categories: , Tag:

Description

আখ চাষ পদ্ধতি, প্রিয় পাঠক আজকের  আর্টিকেলটিতে আমরা আলোচনা করব আখ চাষ পদ্ধতি তাই আমাদের আর্টিকেলটি পড়ে আপনি জানতে পারবেন আখ চাষ পদ্ধতি সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য তাহলে চলুন দেরি না করে এখনি জেনে নেয়া যাক ।

আর্টিকেলটিতে আমরা কিছু  প্রডাক্ট তুলে ধরেছি প্রোডাক্টের বিজ্ঞাপন পিকচার তুলে ধরেছে আপনি চাইলে প্রোডাক্টগুলো দেশের যেকোনো প্রান্ত থেকে অর্ডার করে সংগ্রহ করতে পারেন । প্রডাক্ট কেনার জন্য সরাসরি ফোন নম্বরে যোগাযোগ করুন অথবা অডার অপশনে অর্ডার করুন ।

আখ চাষ পদ্ধতি

আখ বাংলাদেশের একটি অন্যতম প্রধান অর্থকরী ফসল৷ পাট ও তামাকের মতো আখও চাষীদেরকে নগদ অর্থে আজকাল পাট চাষের চেয়ে আখ চাষ অধিক লাভজনক বলে চাষীরা পাটের চেয়ে আখ চাষেই বেশি গুরুত্ব দিচ্ছেন৷ বাংলাদেশের প্রতিটি জেলাতেই কিছু না কিছু আখের চাষ হয়, তবে জলবায়ুর প্রভাব অনুযায়ী দেশের উত্তরাঞ্চলের জেলাগুলো আখ চাষের জন্য উপযোগী ৷ আখ চাষ পদ্ধতি :

মাটিঃ এঁটেল, দোআঁশ ও এঁটেল-দোআঁশ মাটিতে আখ ভাল জন্মে। তবে পানি নিকাশের ব্যবস্থাযুক্ত এঁটেল-দোআঁশ মাটি সবচেয়ে ভাল। উঁচু ও মাঝারি উঁচু জমি যেখানে পানি জমে থাকেনা এমন জমি নির্বাচন করতে হবে।

রোপণের সময়ঃ জানুয়ারী মাস ছাড়া বাংলাদেশে অক্টোবর থেকে ফেব্রুয়ারি মাস পর্যন্ত চারা রোপন করা যায়। তবে চারা রোপণের সর্বোত্তম সময় মধ্য সেপ্টেম্বর থেকে মধ্য ডিসেম্বর। ৩০-৩৫ হাজার কাটিং বা সেট/হেক্টর বীজ প্রয়োজন হয়।

সারের পরিমাণঃ প্রতি হেক্টরে ইউরিয়া ১২০-১৫০ কেজি, টিএসপি ৮০-১১০ কেজি, এমওপি ১১০-১৪০ কেজি, জিপসাম ৫০-৬০ কেজি, জিংক সালফেট ১০-১৫ কেজি, ডলোচুন ১০০-১৫০ কেজি, জৈব সার ২-৩ টন প্রয়োগ করতে হবে। ইউরিয়া ও এমওপি সার ছাড়া অন্যান্য সব সার শেষ চাষের সময় মাটিতে মিশিয়ে দিতে হবে। অর্ধেক ইউরিয়া ও এমওপি রোপণ নালায় দিতে হবে। বাকি ইউরিয়া ও এমওপি চারা রোপণের পর কুঁশি গজানো পর্যায়ে (১২০-১৫০ দিন) উপরি প্রয়োগ করতে হবে

আন্তঃপরিচর্যাঃ গাছ যাতে হেলে না পড়ে সেজন্য আখ গাছ বেঁধে দিতে হবে। আখের শুকনা পাতা ঝরে পড়ে না বলে শুকনা পাতা ছিঁড়ে ফেলতে হয়। মাটিতে বাতাস চলাচলের জন্য মাটি আলগা করে দেয়া দরকার এবং ২/৩ বার আগাছা দমন করতে হয়। গাছের বয়স ৭/৮ সপ্তাহ হলে প্রথমবার এবং ১২-১৪ সপ্তাহ হলে কাণ্ডে ২-১টি গিঁট দেওয়ার পর দ্বিতীয়বার মাটি দিতে হবে। প্রয়োজন হলে বাঁশের সাহায্যে আখ গাছ ঠেস দেয়ার ব্যবস্থা করতে হবে। প্রথমে প্রতিটি আড় শুকনা পাতা দিয়ে বেঁধে পাশাপাশি দুই সারির ৩-৪ টি ঝাড় একত্রে বেঁধে দিতে হবে। আখ দীর্ঘজীবি ফসল বিধায় জমিতে প্রয়োজন অনুসারে সেচ দিতে হবে।

পোকামাকড় ও রোগ ব্যবস্থাপনাঃ আখের ডগা মাজরা পোকা ও কান্ডের মাজরা পোকা: আখের সারির দুই পাশে নালা কেটে হেক্টর প্রতি ৪০ কেজি পিলার ফুরান/ ফুরাডান ৫জি বা ফুরাটায় ৫জি প্রথমবার মার্চ মাসে ও দ্বিতীয়বার মে মাসে প্রয়োগ করে মাটি ঢেকে দিয়ে সেচ দিতে হবে।
        উঁইপোকা: উঁইপোকা রোপণকৃত আখখন্ড খেয়ে ফেলে, ফলে চারা গজাতে পারে না। গাছে                                           আক্রমণ করলে গাছ শুকিয়ে যায়। দমনের জন্য মুড়ি আখ চাষ ব্যবহার বন্ধ করতে                                     হবে। উঁইপোকার ডিবি ভেঙ্গে রাণী খুঁজে মেরে ফেলা সহ পাটকাঠির ফাঁদ দিতে হবে।                                   ভিটাশিল্ড/লিথাল ২০ ইসি প্রয়োগ করা।
           লাল পচা রোগ: এক ধরণের ছত্রাকজনিত রোগ। আক্রান্ত আখের কান্ডকে লম্বালম্বি চিড়লে                                                  ভেতরের কোষগুলো পচে ফ্যাকাসে লাল রঙ দেখায়। এ জন্য রোপণের বীজ                                                শোধন করতে হবে। ফরাস্টিন ৫০ এসপি হেক্টর প্রতি ৫০০ গ্রাম প্রয়োগ করা                                                উচিত।
ফসল সংগ্রহঃ আখ পরিপক্ক হতে সাধারণত: ১২-১৫ মাস সময় লাগে।

আমাদের আর্টিকেলটিতে আমরা বিভিন্ন প্রোডাক্ট এর বিজ্ঞাপন পিকচার তুলে ধরেছিআপনি যদি মেডিসিন টি সংগ্রহ করতে চান তাহলে আর্টিকেল আদালতে সকল নাম্বার গুলো রয়েছে সেগুলো তো ফোন করে মেডিসিন সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে জেনে অর্ডার করে দিতে পারেন আপনার প্রয়োজনীয় মেডিসিন আমাদের প্রতিনিধি খুব দ্রুত সময়ের মধ্যে পৌঁছে যাবে আপনার ঠিকানায় ধন্যবাদ।

আমাদের আর্টিকেলটিতে স্থায়ীভাবে মোটা হওয়ার একটি পণ্য রয়েছে যেটি আপনারা চাইলে ক্রয় করতে পারেন আমাদের এই পণ্যটির ব্যবহার করার ফলে আপনি স্থায়ীভাবে মোটা হতে পারবেন । তাই আপনি যদি স্থায়ীভাবে মোটা হতে চান তাহলে অবশ্যই আমাদের এই পণ্যটি ব্যবহার করতে হবে আর আমাদের পণ্যটি ক্রয় করার জন্য আমাদের সাথে যোগাযোগ করতে হবে ।
আমাদের এই আর্টিকেলটিতে আমরা তুলে ধরেছি কিছু তথ্য যা সংগৃহীত এবং আমাদের নিজস্ব ভাষায় উপস্থাপিত আখ চাষ পদ্ধতি এই আর্টিকেল সম্পর্কে আপনার প্রশ্ন কিংবা জিজ্ঞাসা থাকলে আমাদেরকে অবশ্যই কমেন্ট বক্সে জিজ্ঞাসা করতে পারেন।

Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “আখ চাষ পদ্ধতি”

Your email address will not be published. Required fields are marked *