গ্যাস্ট্রিক হলে কি কি খাওয়া যাবে না

64.00৳ 

সরাসরি কিনতে ফোন করুন: 01622913640

>> সারাদেশে ক্যাশ অন ডেলিভারি করা হয় !

>> ডেলিভারি খরচ ঢাকার মধ্যে ৬০ ঢাকার বাইরে  ১০০ টাকা !

>> প্রোডাক্ট হাতে পেয়ে চেক করে মূল্য পরিশোধ করতে পারবেন !

>> ডেলিভারি খরচ সাশ্রয় করতে একসাথে কয়েকটি প্রোডাক্ট অর্ডার করুন !

999 in stock

SKU: (31) গ্যাস্ট্রিক এর ঔষধ (esonix 20 capsule) ৮ পিস Categories: , Tag:

Description

গ্যাস্ট্রিক হলে কি কি খাওয়া যাবে না গ্যাসের কারণে বুকে ব্যথা, প্রায়ই বলা হয় বুকে অস্বস্তি গ্যাসের কারণে, একটি সাধারণ এবং সাধারণত সৌম্য অবস্থা। এটি ঘটে যখন অত্যধিক গ্যাস পরিপাকতন্ত্রে জমা হয়, যার ফলে বুকের এলাকায় চাপ এবং অস্বস্তি হয়। আরো পড়ুন: ছেলেদের মেয়েদের কন -ডম গুপ্ত –  স্থান মেয়েদের পু -শি  কিনতে এখনই কিনুন

গ্যাস্ট্রিক হলে কি কি খাওয়া যাবে না

খাওয়াদাওয়ার অনিয়ম কিংবা অস্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়ার কারণে অনেকেই গ্যাষ্ট্রিকের সমস্যায় ভোগেন। এটি একটি পরিচিত সমস্যা। ভাজাপোড়া কিংবা তেল-মসলাযুক্ত খাবার খেলেও কারও কারও গ্যাষ্ট্রিকের সমস্যা মারাত্মক আকার ধারন করে।

গ্যসট্রিকের সমস্যায় ভুগে থাকেন অনেকেই। আর সেক্ষেত্রে তাঁদের বেশি তেল-মশলাযুক্ত খাবার, অতিরিক্ত প্রাণিজ প্রোটিন, বেশি জল খাওয়ার পরামর্য দেওয়া হয়ে থাকে। সঙ্গে সঠিক মাপে জল খাওয়া তো আছেই। তবে, জানেন কি, কিছু সবজি আছে সেগুলো গ্যাসট্রিকের সমস্যা যাদের আছে তাঁদের খুব বেশি না-খাওয়াই ভালো। বা কোনওদিনও যদি বুঝতে পারেন আপনার হজমের সমস্যা আছে, তাহলে এই সবজি ভুলেও খাবেন না। তাহলেই আসবে বিপদ।

গ্যাস্ট্রিক হলে কি খাওয়া যাবে না

গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা সাধারণ মনে হলেও এর কষ্ট কেবল ভুক্তভোগীরাই জানেন। তাই গ্যাস্ট্রিক দেখা দিলে তাদের জীবনযাপনে অনেক পরিবর্তন আনতে হয়। বিশেষ করে খাবারের ক্ষেত্রে থাকতে হয় অনেক বেশি সতর্ক। অনেকগুলো খাবার যোগ এবং বিয়োগ করতে হয় প্রতিদিনের তালিকা থেকে। কিছু খাবার রয়েছে যেগুলো গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা থাকলে এড়িয়ে যেতে হবে। চলুন জেনে নেওয়া যাক সেই খাবারগুলো সম্পর্কে-

১. পপকর্ন

পপকর্ন পছন্দ করেন না এমন মানুষ খুব কমই আছে। এটি পৃথিবীজুড়েই খুব জনপ্রিয় একটি খাবার। কিন্তু এই খাবারে থাকা অতিমাত্রায় ফাইবার অনেকের ক্ষেত্রে হজমে গণ্ডগোলের কারণ হতে পারে। পপকর্নে থাকা ফাইবারের কারণে গ্যাস, পেট ফাঁপার সমস্যা দেখা দিতে পারে। হালকা ধরনের এই খাবার পরিপাক ক্রিয়ায় অতিরিক্ত বায়ু যোগ করতে পারে। তাই গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা থাকলে পপকর্ন এড়িয়ে চলুন।

২. কাঁচা সবজি

অনেকে স্বাস্থ্যকর খাবারের তালিকায় কাঁচা সবজি যোগ করেন। কাঁচা সবজিতে সালফার বা গন্ধকের যৌগ থাকে। এ ধরনের যৌগ থেকে হজমের সমস্যা দেখা দিতে পারে। যে কারণে কাঁচা সবজি দিয়ে তৈরি সালাদ খেলে কারও কারও ক্ষেত্রে গ্যাসের সমস্যা দেখা দিতে পারে। তাই গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা থেকে বাঁচতে কাঁচা সবজি খাওয়া এড়িয়ে যেতে হবে।

৩. চুইংগাম

চুইংগাম আসলে কোনো খাবার নয়। এটি চিবোনো হলেও শেষ পর্যন্ত গিলে ফেলা হয় না। মুখশুদ্ধি হিসেবে বহুল প্রচলিত এই জিনিসটিও কিন্তু বদহজমের কারণ হতে পারে। এর কারণ হলো, চুইংগাম মুখে রেখে চিবোলে অনেকটা বাতাসও আমাদের শরীরে প্রবেশ করে। যার ফলে গ্যাসের কারণে অস্বস্তি দেখা দিতে পারে। তাই গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা থাকলে চুইংগাম চিবোনোর অভ্যাস বাদ দিন।

Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “গ্যাস্ট্রিক হলে কি কি খাওয়া যাবে না”

Your email address will not be published. Required fields are marked *