বাচ্চাদের রক্ত আমাশয় হলে কি খাওয়া উচিত

650.00৳ 

সরাসরি কিনতে ফোন করুন: 01622913639

>> সারাদেশে ক্যাশ অন ডেলিভারি করা হয় !

>> ডেলিভারি খরচ ঢাকার মধ্যে ৬০ ঢাকার বাইরে  ১০০ টাকা !

>> প্রোডাক্ট হাতে পেয়ে চেক করে মূল্য পরিশোধ করতে পারবেন !

>> ডেলিভারি খরচ সাশ্রয় করতে একসাথে কয়েকটি প্রোডাক্ট অর্ডার করুন !

305 in stock

SKU: ( ,31 ) পেটের ফাটা দাগ দূর করার ক্রিম Categories: , Tag:

Description

বাচ্চাদের রক্ত আমাশয় হলে কি খাওয়া উচিত, প্রিয় পাঠক আজকের  আর্টিকেলটিতে আমরা আলোচনা করব বাচ্চাদের রক্ত আমাশয় হলে কি খাওয়া উচিত নিয়ে তাই আমাদের আর্টিকেলটি পড়ে আপনি জানতে পারবেন বাচ্চাদের রক্ত আমাশয় হলে কি খাওয়া উচিত সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য তাহলে চলুন দেরি না করে এখনি জেনে নেয়া যাক ।

আর্টিকেলটিতে আমরা কিছু  প্রডাক্ট তুলে ধরেছি প্রোডাক্টের বিজ্ঞাপন পিকচার তুলে ধরেছে আপনি চাইলে প্রোডাক্টগুলো দেশের যেকোনো প্রান্ত থেকে অর্ডার করে সংগ্রহ করতে পারেন । প্রডাক্ট কেনার জন্য সরাসরি ফোন নম্বরে যোগাযোগ করুন অথবা অডার অপশনে অর্ডার করুন ।

বাচ্চাদের রক্ত আমাশয় হলে কি খাওয়া উচিত

আমাশয় হলো অন্ত্রের ইনফেকশন বা সংক্রমণ।মূলত জীবাণুঘটিত রোগ। আমাশয়ের কারণে প্রাথমিকভাবে খুব কষ্ট হলেও এতে প্রাণহানীর কোনও আশঙ্কা থাকে না। তবে আমাশয় দীর্ঘদিন নিরাময় না হলে প্রাণহানীর শঙ্কাও থাকে।বাচ্চাদের রক্ত আমাশয় হলে ৬মাসের বেশি বয়স হলে বুকের দুধতো খাওয়াবেন তার সঙ্গে আতপ চাল দিয়ে খিঁচুড়ি,কাঁচা কলার ভর্তা,পাকা কলা, আপেল,প্রচুর পরিমাণ তরল খাবার যেমন-জল,চিনির শরবত,ডাবের জল,ভাতের মাড়,ডালের জল,বাড়ির তৈরি ফলের রস ইত্যাদি খাওয়াতে হবে। ৪মাস বয়স হলে মিনারেল জল,লবণ ও গুড় দিয়ে মিশিয়ে বাচ্ছা পায়খানার পর ২-৩ চামচ করে এই জলটি খাবাবেন।ডিমের সাদা অংশ,সেদ্ধ আলু,সবজি (লাউ,পটল,ঝিঙে ইত্যাদি)মাছ ও মাংস দিতে পারেন খুবই কম তাও আবার মশলা ছাড়া। গোরু দুধ ও শাক দেবেন না। যাদের আমাশয় তারা যদি দিনে ৬-৭বারের বেশি মলত্যাগ করে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নেবেন।

বাচ্চাদের রক্ত আমাশয় হলে কি খাওয়া প্রয়োজন

বাচ্চাদের রক্ত আমাশয়, এনাল ফিসার, আইবিডি, আইবিএস, বিরল ক্ষেত্রে পাইলস ইত্যাদি হলো মলদ্বার দিয়ে রক্তক্ষরণের অন্যতম কিছু কারণ যেগুলির কার্যকর হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসা রয়েছে।যখন দেখবেন এলোপ্যাথিক চিকিৎসকদের এন্টিবায়োটিক কেন তাদের কোন চিকিৎসাতেই কাজ হচ্ছে না বরং লাগাতার অযথা একের পর এক মেডিক্যাল টেস্ট দিয়ে দিয়ে শিশুর জীবন উল্টো দুর্বিষহ করে তুলছে তখন কাল বিলম্ব না করে দক্ষ এবং রেজিস্টার্ড একজন হোমিও চিকিৎসক খুঁজে বের করে প্রোপার চিকিৎসা নিবেন। মনে রাখবেন, এলোপ্যাথিক চিকিৎসায় নতুন রোগ অর্থাৎ একিউট ডিজিস ভালো হলেও পুরাতন রোগ বা ক্রনিক ডিজিস আদৌ ভালো হয় না। সেগুলির একমাত্র স্থায়ী চিকিৎসা হোমিওপ্যাথি।

বাচ্চাদের রক্ত আমাশয় হলে কি খাওয়া ভালো

সব বয়সী মানুষদের আমাশয় হয়ে থাকে। আমাশয় দীর্ঘদিন নিরাময় না হলে প্রাণহানীর শঙ্কাও থাকে।বাচ্চাদের রক্ত আমাশয় হলে বিশুদ্ধ পানি পান করাতে হবে।দাঁত ব্রাশ করা পর বিশুদ্ধ পানি ব্যবহার করতে হবে। মলত্যাগের পরে হাত সাবান দিয়ে ভালো করে ধুতে হবে। খাবার গ্রহণের আগে সাবান দিয়ে হাত ভালো করে ধুতে হবে। বাইরের খাবার কম খাওয়াই ভালো। ফল বা সবজি খাওয়ার আগে ভালোভাবে ধুয়ে নিতে হবে। ব্যবহৃত জিনিসপত্র পরিষ্কার রাখতে হবে। অসুস্থ শিশুর ডায়াপার পরিবর্তন করতে সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে।
আমাদের এই আর্টিকেলটিতে আমরা তুলে ধরেছি কিছু তথ্য যা সংগৃহীত এবং আমাদের নিজস্ব ভাষায় উপস্থাপিত বাচ্চাদের রক্ত আমাশয় হলে কি খাওয়া উচিত এই আর্টিকেল সম্পর্কে আপনার প্রশ্ন কিংবা জিজ্ঞাসা থাকলে আমাদের আমাদেরকে অবশ্যই কমেন্ট বক্সে জিজ্ঞাসা করতে পারেন যে আর্টিকেলটি লিখেছি এই আর্টিকেলে পেটের ফাটা দাগ দূর করার ক্রিম প্রোডাক্টের বিজ্ঞাপন পিকচার দেয়া রয়েছে আপনি চাইলে প্রোডাক্ট গুলো দেশের যে কোন প্রান্ত থেকে অর্ডার করতে পারেন ।

Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “বাচ্চাদের রক্ত আমাশয় হলে কি খাওয়া উচিত”

Your email address will not be published. Required fields are marked *