ইদুর কামড়ালে কি করা উচিত

500.00৳ 

সরাসরি কিনতে ফোন করুন: 01622913639

>> সারাদেশে ক্যাশ অন ডেলিভারি করা হয় !

>> ডেলিভারি খরচ ঢাকার মধ্যে ৬০ ঢাকার বাইরে  ১০০ টাকা !

>> প্রোডাক্ট হাতে পেয়ে চেক করে মূল্য পরিশোধ করতে পারবেন !

>> ডেলিভারি খরচ সাশ্রয় করতে একসাথে কয়েকটি প্রোডাক্ট অর্ডার করুন !

305 in stock

Description

ইদুর কামড়ালে কি করা উচিত, প্রিয় পাঠক আজকের  আর্টিকেলটিতে আমরা আলোচনা করব ইদুর কামড়ালে কি করা উচিত নিয়ে তাই আমাদের আর্টিকেলটি পড়ে আপনি জানতে পারবেন ইদুর কামড়ালে কি করা উচিত সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য তাহলে চলুন দেরি না করে এখনি জেনে নেয়া যাক ।

আর্টিকেলটিতে আমরা কিছু  প্রডাক্ট তুলে ধরেছি প্রোডাক্টের বিজ্ঞাপন পিকচার তুলে ধরেছে আপনি চাইলে প্রোডাক্টগুলো দেশের যেকোনো প্রান্ত থেকে অর্ডার করে সংগ্রহ করতে পারেন । প্রডাক্ট কেনার জন্য সরাসরি ফোন নম্বরে যোগাযোগ করুন অথবা অডার অপশনে অর্ডার করুন ।

ইদুর কামড়ালে কি করা উচিত

ইঁদুর কামড়ালে কেমন যন্ত্রণা হয়, তা কেবল ভুক্তভোগীরাই জানেন। ইঁদুর ৬০টির বেশি রোগের জীবাণু বহন ও বিস্তার করে। এর মধ্যে রয়েছে প্লেগ, অ্যাইরোসিস, চর্মরোগ, কৃমি রোগ, হান্টা ভাইরাস, ইঁদুরে কামড়ানো জ্বর, টাইফয়েড, জন্ডিস, ক্ষেত্রবিশেষে জলাতঙ্ক।ইঁদুর প্রায় ৬০ ধরনের মারাত্মক রোগ বহন করে। বাঁশগাছের বীজ নষ্ট, মাটির ঘর ছিদ্রকরণসহ ভয়াবহ প্লেগ রোগ ও মানুষের বাতজ্বরের জন্য এরা দায়ী। ইঁদুরে কামড়ালে প্রথমে রক্তক্ষরণ বন্ধ করতে হবে। আক্রান্ত জায়গাটি পরিষ্কার গরম পানি ও সাবান দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। রক্তক্ষরণ বন্ধ করার জন্য পরিষ্কার কাপড়, গজ ব্যান্ডেজ দিয়ে কয়েক মিনিট চেপে ধরুন। কামড়ের জায়গাটি অ্যান্টিসেপটিক বা পারঅক্সাইড দিয়ে ভালো করে পরিষ্কার করুন। পরিষ্কারের সময় ভালো করে খেয়াল করুন, যাতে কোনো ফরেনবডি না থাকে। ফরেনবডি থাকলে পরে জটিলতা হতে পারে। সেকেন্ডারি ইনফেকশন থেকে বাঁচতে অ্যান্টিবায়োটিক খেতে হবে। একটি টিটি টিকা নিতে হবে। ইঁদুর সাধারণত জলাতঙ্ক ছড়ায় না। তবে ইঁদুর যদি গৃহের না হয়ে বন্য হয় এবং জলাতঙ্কের জীবাণু বহন করে, তবে অবশ্যই র‍্যাবিস ভ্যাকসিন নিতে হবে।

ইদুর কামড়ালে কি করা প্রয়োজন

ইঁদুর জাতীয় প্রাণী বা Rodent (ইঁদুর, কাঠবিড়ালি ও সজারু) এ্যান্টার্টিকা মহাদেশ বাদে পৃথিবীর প্রতিটি মহাদেশে এদের উপস্থিতি লক্ষ করা যায়। সাধারণত মানুষ ইঁদুরের সংস্পর্শে গেলে নিঃশ্বাসের মাধ্যমে আক্রান্ত হয়ে থাকে। প্রথমে রক্তক্ষরণ বন্ধ করতে হবে। আক্রান্ত জায়গাটি পরিষ্কার গরম পানি ও সাবান দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। রক্তক্ষরণ বন্ধ করার জন্য পরিষ্কার কাপড়, গজ ব্যান্ডেজ দিয়ে কয়েক মিনিট চেপে ধরুন। কামড়ের জায়গাটি অ্যান্টিসেপটিক বা পারঅক্সাইড দিয়ে ভালো করে পরিষ্কার করুন। পরিষ্কারের সময় ভালো করে খেয়াল করুন, যাতে কোনো ফরেনবডি না থাকে। ফরেনবডি থাকলে পরে জটিলতা হতে পারে। সেকেন্ডারি ইনফেকশন থেকে বাঁচতে অ্যান্টিবায়োটিক খেতে হবে। একটি টিটি টিকা নিতে হবে।কামড়ানোর পর আর কোনো জটিলতা হয় কি না, সেটি বোঝার জন্য আক্রান্ত ব্যক্তিকে কমপক্ষে ১০ দিন নজর রাখা প্রয়োজন এবং শরীরের যত্ন নেওয়া প্রয়োজন।

ইদুর কামড়ালে কি করতে হয়

ইঁদুরের নোংরা জায়গা পছন্দ, তাই ঘরবাড়ি পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে। বাড়িতে আবর্জনা ফেলার বিন সব সময় পরিষ্কার রাখতে হবে এবং ঢেকে রাখতে হবে। বাড়িতে ইঁদুর প্রবেশের পথ বন্ধ করে দিতে হবে এবং নিয়মিত পর্যবেক্ষণ করতে হবে। বাড়ির আশপাশের ঝোপ-ঝাড়-আগাছা, ছাদ ঘেঁষে উঠা গাছ বা বেয়ে উঠা লতাজাতীয় গাছ পরিষ্কার করতে হবে। পোষা প্রাণী এবং খাঁচায় পোষা পাখি থেকে পতিত ফল, বীজ ও অন্যান্য বর্জ্য নিঃসরণ করতে হবে। খাবারসামগ্রী ভালোভাবে মুখ বন্ধ করে পাত্রে রাখতে হবে। ইঁদুরের সংস্পর্শে আসা খাদ্য বা পানীয় ফেলে দিতে হবে। থালা-প্লেট ব্যবহারের পূর্বে গরম পানি ও ডিটারজেন্ট দিয়ে ধুয়ে নিতে হবে। খাবার তৈরি, খাবার খাওয়া, পানীয় পানের আগে ভালোভাবে হাত ধুয়ে নিতে হবে। নির্দিষ্ট জায়গায় ইঁদুরের সক্রিয় উপস্থিতি দেখা গেলে সেখানে জুতা পরতে হবে এবং সেখানে শোয়া বা ঘুমানো যাবে না। ইঁদুর বা মাউস যদি কাউকে কামড় দেয় প্রাথমিক চিকিৎসা হিসেবে আক্রান্ত স্থান সাবান পানি দিয়ে ধুয়ে দিতে হবে এবং দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।
আমাদের এই আর্টিকেলটিতে আমরা তুলে ধরেছি কিছু তথ্য যা সংগৃহীত এবং আমাদের নিজস্ব ভাষায় উপস্থাপিত ইদুর কামড়ালে কি করা উচিত এই আর্টিকেল সম্পর্কে আপনার প্রশ্ন কিংবা জিজ্ঞাসা থাকলে আমাদের আমাদেরকে অবশ্যই কমেন্ট বক্সে জিজ্ঞাসা করতে পারেন যে আর্টিকেলটি লিখেছি এই আর্টিকেলে কাটা দাগ,পোড়া দাগ ফাটা দাগ দূর করে প্রোডাক্টের বিজ্ঞাপন পিকচার দেয়া রয়েছে আপনি চাইলে প্রোডাক্ট গুলো দেশের যে কোন প্রান্ত থেকে অর্ডার করতে পারেন ।

Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “ইদুর কামড়ালে কি করা উচিত”

Your email address will not be published. Required fields are marked *