ঠান্ডায় মাথা ব্যথা হলে করণীয়

100.00৳ 

সরাসরি কিনতে ফোন করুন: 01622913640

>> সারাদেশে ক্যাশ অন ডেলিভারি করা হয় !

>> ডেলিভারি খরচ ঢাকার মধ্যে ৬০ ঢাকার বাইরে  ১০০ টাকা !

>> প্রোডাক্ট হাতে পেয়ে চেক করে মূল্য পরিশোধ করতে পারবেন !

>> ডেলিভারি খরচ সাশ্রয় করতে একসাথে কয়েকটি প্রোডাক্ট অর্ডার করুন !

999 in stock

SKU: (30) মাথা ব্যথা এর ঔষধ ( migrex 200 ) ১০ পিস Categories: , Tag:

Description

ঠান্ডায় মাথা ব্যথা হলে করণীয় ঠান্ডা আবহাওয়ার কারণে অনেকের নাক বন্ধ হয়ে যায়। সঙ্গে মাথাব্যথা ও সর্দি যোগ হয়। ঋতু পরিবর্তনের সময় এই উপসর্গগুলো অনেকেরই দেখা দেয়। এগুলো অনেক ক্ষেত্রে সাইনোসাইটিসের কারণেও হয়। তবে ভয় না পেয়ে, আগেভাগেই কড়া অ্যান্টিবায়োটিক না খেয়ে জেনে নিন কী করতে হবে। দরকার হলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। আরো পড়ুন: ছেলেদের মেয়েদের কন -ডম গুপ্ত –  স্থান মেয়েদের পু -শি  কিনতে এখনই কিনুন

ঠান্ডায় মাথা ব্যথা হলে করণীয়

সর্দি, কাশি, মাথা ব্যথা সারা বছরের রোগ। ওষুধপথ্য ছাড়াও কিছু ঘরোয়া দাওয়াই প্রয়োগ করলে এসব ক্ষেত্রে বেশ উপকার মেলে। নিচে এমন কিছু ঘরোয়া দাওয়াই সম্পর্কে পরামর্শ দেওয়া হলো :

  •   অল্প পরিমাণ সরিষার তেলে আধা চা চামচ কালিজিরা হাতের তালুতে মিশিয়ে বা রগড়ে নিন। এবার সেটা ছেঁকে নিয়ে হাতের আঙুলে করে শিশুর নাকের দুই পাশে মালিশ করুন। রাতে শিশুদের শ্বাস বন্ধ হওয়ার সমস্যায় এটা বেশ কার্যকর পদ্ধতি।
  •   এক গ্লাস গরম পানিতে এক চিমটি হলুদের গুঁড়া মেশান। এটি দিয়ে প্রতিদিন গারগল বা কুলকুচি করুন। এ ছাড়া এক গ্লাস দুধে আধা চা চামচ হলুদের গুঁড়া মিশিয়ে ফুটিয়ে নিন। সম্ভব হলে এর সঙ্গে দুই চা চামচ মধু ও এক চিমটি গোলমরিচের গুঁড়া মিশিয়ে এই দুধ দিনে দু-তিনবার পান করুন।
  •  একটি পাত্রে কিছু পানি ফুটিয়ে নিন। পানি এমনভাবে ফুটাবেন যাতে বাষ্প নির্গত হয়। এবার সেই ফুটন্ত পানিতে এক চামচ হলুদ ও এক চিমটি কর্পূর মিশিয়ে সেই ধোঁয়া বা বাষ্প নাক দিয়ে টানুন বা ইনহেল করুন।এটা কয়েকবার করলে মাথা ব্যথায় উপকার মিলবে।
  • আদা কুচি কুচি করে এক টেবিল চামচ পানিতে মেশান। এবার এটি ঢাকনা দিয়ে ঢেকে ৫ থেকে ১০ মিনিট ফুটিয়ে ঠাণ্ডা করে সামান্য মধু মেশান। দিনে তিন-চারবার এই পানীয় পান করুন। এর সঙ্গে এক চা চামচ আদা কুচি, গোলমরিচের গুঁড়া ও লবঙ্গের গুঁড়া দুধ বা মধুর সঙ্গে মিশিয়ে মিশ্রণটি দিনে তিনবার পান করুন।চাইলে এক টুকরা আদা নিয়ে মুখে চিবাতে পারেন। আদার রস বুকের কফ বা শ্লেষ্মা শরীর থেকে বের করে দিতে সাহায্য করবে।
  • এক গ্লাস সামান্য উষ্ণ পানির সঙ্গে এক চা চামচ লবণ মিশিয়ে এই পানীয় দিনে দু-তিনবার গারগল করুন। সর্দি, কফ দূর করতে এটি বেশ কার্যকর।
  •  পরিমাণমতো মধু, পেঁয়াজ, পানি, লেবুর রস মিশিয়ে পাঁচ থেকে সাত মিনিট ফুটিয়ে নিন। এভাবে সামান্য উষ্ণ এই পানি দিনে অন্তত তিন-চারবার পান করলে সর্দি-কাশিতে উপকার পাবেন।

ঠান্ডায় মাথা ব্যথা হলে করণীয় কি

মাথা ব্যথার নির্দিষ্ট কোনও কারণ কিন্তু নেই। অতিরিক্ত পরিশ্রম বা মানসিক চাপ থাকলে সেখান থেকে মাথা ব্যথা হতেই পারে। এছাড়াও ল্যাপটপের সামনে বসে একটানা কাজ করলে সেখান থেকেও কিন্তু সমস্যা হতে পারে। আর মাথা ব্যথা হলে ছেদ পড়ে জীবনযাত্রায়। কোনও শারীরিক সমস্যা নিয়ে কখনই মন দিয়ে কাজ করা যায় না।

মাথা ব্যথা থেকে মুক্তি পেতে অনেকেই ওষুধ সেবন করেন। তবে ওষুধ সেবনের আগে কিছু ঘরোয়া পদ্ধতি আছে, যেগুলো পালন করলে মাথা ব্যথা থেকে কিছুটা মুক্তি পাওয়া যাবে।

শরীর সুস্থ রাখতে প্রয়োজনীয় খনিজ আর ভিটামিনের। আর তাই সব সময় চেষ্টা করুন সুষম আহার করতে। অনেক সময় অপুষ্টি থেকেও কিন্তু মাথা ব্যথার সমস্যা আসে। বেশিক্ষণ খালি পেটে থাকলে সেখান থেকেও মাথাব্যথা হয়। আর দেরি করে খাবার খেলে মস্তিষ্কে গ্লুকোজ সরবরাহ কম হয়। সেখান থেকে হাইপোগ্লাইসেমিয়া হওয়ার সম্ভাবনাও থেকে যায়।

প্রতিদিন নিয়ম মেনে ঘুমেরও প্রয়োজন আছে। রাতে অন্তত ৭-৮ ঘন্টা ঘুমোতে হবে। ঠিক মতো ঘুম না হলে কিন্তু কোনও সমস্যারই সমাধান হয় না। এতে আরও নানা সমস্যাও বাড়ে। মানসিক চাপ পড়ে। শরীরে যার প্রভাব পড়ে। দিনের পর দিন মাথ ব্যথার মত সমস্যা থাকলে পরবর্তীতে সেখান থেকে জটিল কোনও সমস্যাও কিন্তু আসতে পারে। অতিরিক্ত উত্তেজনা এবং অতিরিক্ত পরিশ্রমও কিন্তু এড়িয়ে চলতে হবে।

Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “ঠান্ডায় মাথা ব্যথা হলে করণীয়”

Your email address will not be published. Required fields are marked *