জরায়ু ইনফেকশন কেন হয়

2,250.00৳ 

সরাসরি কিনতে ফোন করুন: 01622913639

>> সারাদেশে ক্যাশ অন ডেলিভারি করা হয় !

>> ডেলিভারি খরচ ঢাকার মধ্যে ৬০ ঢাকার বাইরে  ১০০ টাকা !

>> প্রোডাক্ট হাতে পেয়ে চেক করে মূল্য পরিশোধ করতে পারবেন !

>> ডেলিভারি খরচ সাশ্রয় করতে একসাথে কয়েকটি প্রোডাক্ট অর্ডার করুন !

307 in stock

Description

জরায়ু ইনফেকশন কেন হয় সম্পর্কে অনেকেই আমাদের কাছে বিস্তারিত জানার আগ্রহ প্রকাশ করে থাকেন তাই আজকের আর্টিকেলটি সাজিয়েছি এমন ভাবে যে আর্টিকেলটির মাধ্যমে আপনারা জানতে পারবেন মেয়েদের জরায়ু ইনফেকশন কেন হয় এবং ইনফেকশন হলে মেয়েদের কি কি সমস্যা হতে পারে এ সম্পর্কে আমরা বিস্তারিত আলোচনা করব। কি কি কারনে স্বামী স্ত্রীকে তালাক দিতে পারে

জরায়ু ইনফেকশন কেন হয়

এই আর্টিকেলটির মাধ্যমে আমরা আজকে জানবো মেয়েদের জরায় ইনফেকশন কি কি কারণে হতে পারে এবং এই জরায়ুর ইনফেকশন হলে কোন কোন সমস্যা একটি মেয়ে ভুগতে পারে এবং এর জন্য আপনাকে কি কি পদ্ধতি অবলম্বন করতে হবে এবং পরবর্তীতে আপনি কিভাবে থেকে মুক্তি পেতে পারেন এ সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবো জানবো।

পিআইডি (পেলভিক ইনফ্লামেটরি ডিজিজ) হচ্ছে জরায়ু এবং ডিম্বনালীতে জীবাণুর সংক্রমণ। মাঝে মাঝে এটি ডিম্বাশয়কেও আক্রান্ত করতে পারে। পিআইডির একটি কমন কারণ হচ্ছে Chlamydia and gonorrhoea নামক জীবাণুর সংক্রমণ।

এছাড়া আন্যান্য কিছু জীবাণুও এ রোগের কারণ হতে পারে। তবে বেশির ভাগ ক্ষেত্রে যৌনবাহিত রোগের মাধ্যমে এ জীবাণুর সংক্রমণ হয়ে থাকে।

এছাড়াও গর্ভপাত, জরায়ুর কোনো অপারেশন, অনিরাপদ শারীরিক সম্পর্ক ইত্যাদির মাধ্যমেও জীবাণু ভেতরে ঢুকতে পারে। কিছু লক্ষণ দেখে এবং পরীক্ষা-নিরীক্ষার মাধ্যমে এ রোগে আক্রান্তদের শনাক্ত করা যায়।

এ রোগের কিছু পরিচিত লক্ষণ হলো: তলপেটে ব্যথা, জ্বর এবং এবনরমাল স্রাব, অনিয়মিত পিরিয়ড, এসময় অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ এবং পেটে ব্যথা, সহবাসে ব্যথা অনুভূত হওয়া।

এই লক্ষণগুলোর তীব্রতা কম বা বেশি হতে পারে। এমনকি অনেক সময় কোনো ধরনের লক্ষণ প্রকাশ ছাড়াও আপনি এ রোগে আক্রান্ত হতে পারেন। কারণ এ রোগের জীবাণুগুলো অনেক সময় কোনো ধরনের লক্ষণ প্রকাশ ছাড়াই জরায়ুর মুখে সুপ্ত অবস্থায় থাকতে পারে।

এ রোগ নির্ণয়ের জন্য কিছু পরীক্ষার দরকার হয়। জরায়ুর মুখ বা মুত্রনালী থেকে ডিসচার্জ নিয়ে পরীক্ষা করে জীবাণুর উপস্থিতি নির্ণয় করা যেতে পারে। এছাড়া সংক্রমণের লক্ষণ বোঝার জন্য রক্ত, ইউরিন পরীক্ষা ও পেটের আল্ট্রাসনোগ্রাম করা হয়। কিছু কিছু ক্ষেত্রে ল্যাপারস্কপি পরীক্ষার মাধ্যমেও এ রোগের উপস্থিতি নিশ্চিত করা হয় এবং একই সময় চিকিৎসাও সম্ভব। পুরুষের মেয়েদের সেক্স বৃদ্ধি করার ভেষজ  ঔষধ কিনতে ক্লিক করুনএখনি কিনুন 

 

জরায়ু ক্যান্সারের লক্ষণ

সাধারণত জরায়ুর ক্যান্সারের লক্ষণ অনেক হতে পারে এবং আপনি জরায়ুর ক্যান্সার হওয়ার লক্ষণ এবং জরায়ুর ক্যান্সারের যে কারণ গুলো আছে সেগুলোর আপনি সঠিক চিকিৎসা করাবেন যদি সঠিক চিকিৎসা না করাতে পারেন আপনার যে কোন সমস্যা হতে পারে এজন্য আপনাকে মানসিক ধরনের প্রস্তুতি নিয়ে থাকতে হবে এবং আপনি নিজেকে সতর্ক রাখবেন যাতে এই ধরনের সমস্যা আপনাকে না ভুগতে হয়।

এর চিকিৎসা সময় মত না করালে কিছু দীর্ঘমেয়াদী জটিলতার সৃষ্টি হতে পারে। এগুলো হচ্ছে-দীর্ঘদিন ধরে তলপেট ব্যথা, কোমর ব্যথা, ডিম্বনালীর পথ বন্ধ হয়ে বা জরায়ু এবং এর আশপাশের অঙ্গ প্রত্যঙ্গের স্বাভাবিক অবস্থান নষ্ট হয়ে সন্তান ধারনে অক্ষমতা বা বন্ধ্যাত্বের কারণ হয়, ডিম্বনালীর পথ বাধাগ্রস্ত হয়ে একটোপিক প্রেগনেন্সি (জরায়ুর বাইরে গর্ভধারণ) হতে পারে, প্রজননতন্ত্র সংক্রমণের যথাযথ চিকিৎসা না নিলে গর্ভপাত, সময়ের আগে বাচ্চা প্রসব এবং কম ওজনের বাচ্চা জন্মদানের সম্ভাবনাও বেড়ে যায়।

জরায়ু ইনফেকশনের হলে ঘরোয়া চিকিৎসা

জরায়ুর ইনফেকশনের ঘরোয়া চিকিৎসা আপনি নিতে পারেন সে ক্ষেত্রে আপনাকে কিছু নিয়মকানুন মানতে হবে আপনি যখন জরায়ু ইনফেকশনের ঘরোয়া চিকিৎসা নেবেন সেখানে আপনি লেবু জল অথবা লেবু দিয়ে আপনি কুসুম গরম পানি খেতে পারবেন এবং আপনি এ থেকে কিছু ট্রিটমেন্ট অথবা কোন ডাক্তারের কাছ থেকে ট্রিটমেন্ট নিয়ে সে ট্রিটমেন্ট অনুযায়ী আপনি আপনার চিকিৎসা চালিয়ে যাবেন যাতে আপনার কোন সমস্যা না হয় এবং নিয়ম অনুযায়ী আপনি চলাফেরা করবেন যাতে আপনার ওখানে আপনি ভেজা কাপড় খুব কম ব্যবহার করবেন।

Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “জরায়ু ইনফেকশন কেন হয়”

Your email address will not be published. Required fields are marked *